নলছিটিতে দুই ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ

নলছিটিতে দুই ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ

শেয়ার করুন

হাওলাদার বেলাল,ঝালকাঠিরঃনলছিটিতে দুই ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে আমিরাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরির খোকন সিকদারের বিরুদ্ধে। তিনি বিদ্যালয়টির নৈশপ্রহরীর দায়িত্বও পালন করেন। শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলার আমিরাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি কক্ষে এ ঘটনা ঘটে। মেয়ে দুটির চিৎকার শুনে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে দপ্তরি খোকন সিকদারকে আটক করলেও প্রধান শিক্ষক এসে তাকে ছাড়িয়ে নেন। এ ঘটনার বিচারের দাবিতে স্থানীয়রা বরিশাল-ঝালকাঠি আঞ্চলিক মহাসড়ক একঘণ্টা অবরোধ করে রাখেন। এসময় বিক্ষোভ মিছিল করেন তারা স্কুলটির শিক্ষার্থীরা।

পুলিশ ও মেয়েটির পরিবার জানায়, বিদ্যালয়ের দপ্তরি খোকন সিকদার দুই ছাত্রীকে বিদ্যালয়ের একটি কক্ষে সকালে প্রাইভেট পড়ান। শুক্রবার সকালে বিদ্যালয়ের কক্ষের দরজা আটকে তিনি দুই ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা করেন। তাদের চিৎকার শুনে আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে খোকন সিকদারকে বিদ্যালয়ের কক্ষের মধ্যেই আটক করে রাখেন। খবর পেয়ে বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক অভিযুক্ত দপ্তরির ভাই জাহাঙ্গির হোসেন সিকদার এসে ধর্ষণচেষ্টাকারীকে লোকজনের হাত থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে যান। এ ঘটনার বিচারের দাবিতে মেয়ে দুটির পরিবার ও স্থানীয় লোকজন বরিশাল-ঝালকাঠি আঞ্চলিক মহাসড়ক এক ঘণ্টা অবরোধ করেন। তারা অভিযুক্ত দপ্তরিকে গ্রেপ্তারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বিচারের আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেয় এলাকাবাসী।

নলছিটি থানার উপ-পরিদর্শক শহিদুল আলম জানান, এ ঘটনায় একটি মেয়ের পরিবার থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। অভিযুক্ত দপ্তরি পলাতক রয়েছেন। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

দেশজুড়ে