মেহেরপুরে মামার ধর্ষণের শিকার শিশু ভাগ্নে

মেহেরপুরে মামার ধর্ষণের শিকার শিশু ভাগ্নে

শেয়ার করুন

নানার বাড়িতে বেড়াতে এসে ধর্ষণের শিকার হয়েছে চতুর্থ শ্রেণি পড়ুয়া এক শিশুকন্যা। বুধবার (১৫ মার্চ) দুপুরে মেহেরপুর সদর উপজেলার তেড়ঘরিয়া গ্রামে এঘটনা ঘটে। অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণের কারণে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতাল থেকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে চিকিৎসক।শিশুটি স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর শিক্ষার্থী। অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি শিশুটির আপন চাচাতো মামা ও দুই সন্তানের জনক স্থানীয় মুদি ব্যবসায়ী রিগান।

শিশুর মা জানান,গত তিনদিন থেকে তার নানার বাড়ি থেকে মেহেরপুর সদর উপজেলার তেড়ঘরিয়া গ্রামে নানার বাড়িতে বেড়াতে যায় ঔই শিশু।ওই দিব নানার বাড়িতে একাই ছিল। এ সময় প্রতিবেশী চাচাতো মামা রিগান হাত মুখ বেঁধে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরে শিশুটির না নিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়।

মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ মোহাম্মদ হাসিবুর সাত্তার জানান, ধর্ষণের শিশুটির অবস্থা আশঙ্কাজনক। প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছে তাই প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

মেহেরপুর সদর থানার ওসি আব্দুল আলিম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। নিযুক্ত রিগানকে গ্রেফতারের চেষ্টা করছে পুলিশ।

মেহেরপুর জেলা