মেহেরপুরে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে স্বামী স্ত্রীর জেল

মেহেরপুরে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে স্বামী স্ত্রীর জেল

শেয়ার করুন

সৌদি আরবে পাঠানোর নাম করে মোটা অংকের টাকা নিয়ে আত্মসাৎ করার অভিযোগে জমির উদ্দিন নামের এক ব্যক্তিকে ৩ বছর সশ্রম কারাদণ্ড, ৪ লক্ষ টাকা জরিমানা, অনাদায় আরও ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং তার স্ত্রী ইয়াসমিন আরাকে ২ দুই বছর কারাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো ১ মাসের কারাদন্ডাদেশ দিয়েছে আদালত।রবিবার(৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের দিকে মেহেরপুর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট প্রথম আদালতে বিচারক মোঃ তরিকুল ইসলাম এ রায় দেন। সাজাপ্রাপ্ত জমির উদ্দিন চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলার কুলপালা গ্রামের খোদা বক্সের ছেলে এবং ইয়াসমিন আর জমির উদ্দিন এর স্ত্রী।

মামলার বিবরণে জানা গেছে আসামিদ্বয় মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার বিশ্বনাথপুর গ্রামের শাহাবুদ্দিনের স্ত্রী তাসলিমা খাতুনের নিকট আত্মীয় হওয়ার সুবাদে তার স্বামী শাহাবুদ্দিনকে সৌদি আরবে পাঠাবো বলে ২০১৮ সালের ৩ অক্টোবর থেকে ২০১৯ সালের ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৪ লক্ষ ২৯ হাজার টাকা আদায় করেন। পরে সৌদি আরবে পাঠাতে ব্যর্থ হওয়ার পর টাকা ফেরত চাইলে তাদেরকে হুমকি দেওয়া হয়। ওই ঘটনায় তাসলিমা খাতুন বাদী হয়ে ২০২০ সালের ২৮ অক্টোবর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট প্রথম আমলি আদালতে বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও অভিবাসী আইন ৩১(ক)(খ)(গ)(ঘ)/৩৩/৩৫ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার আর নং ১৪৯/২০২০।

মামলায় মোট ৭জন সাক্ষী তাদের সাক্ষ্য প্রদান করেন। এতে আসামি জমির উদ্দিন ৩১(ক)(খ)(গ)(ঘ) দোষী প্রমাণিত হওয়ায় আদালত তাকে ৩ বছর সশ্রম কারাদণ্ড, ৪ লক্ষ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং তার স্ত্রী ইয়াসমিন আরা একই ধারায় দোষী প্রমাণিত হওয়ায় তাকে ২ দুই বছর কারাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো ১ মাসের কারাদন্ডের আদেশ দেন। একই সাথে আসামির অনুকূলে ৪ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দেন। মামলায় বাদী পক্ষে অ্যাডভোকেট মিনা পাল এবং আসামির পক্ষে কামরুল হাসান কৌশলী ছিলেন।

মেহেরপুর জেলা