ব্যর্থতা ত্রুটি বিচ্যুতি আমার, সফলতা জনগণের …এম এ খালেক

গাংনীর চোখগাংনীর চোখ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  04:45 PM, 21 April 2024

উপজেলা পরিষদে যে সমস্ত অর্থ বরাদ্দ এসেছে সেগুলো মানুষের কল্যাণে এলাকার উন্নয়ন করা হয়েছে। বলে মন্তব্য করেছে গাংনী উপজেলা চেয়ারম্যান ও মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ খালেক।
রোববার দুপুর ১টার সময় তার কার্যালয়ের সামনে গাংনী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের পর সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এই মন্তব্য করেন।
তিনি বলেন,আমার কোন ভাই ভাস্তে আন্ত্রীয় স্বজন উপজেলা পরিষদে এসে কারোর সাথে অসৌজন্য মুলক আচরন কিংবা কাউকে হয়রানি করিনি।
এরপরও উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে তিনি কারো সাথে ভুলক্রমে যদি অসৌজন্যমূল আচরণ কিংবা ভুলভ্রান্তি করে থাকেন তার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি।
তিনি বলেন, গাংনী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালনকালে অনিয়ম দুর্নীতি ও স্বজন প্রীতি করিনি তবুও ব্যর্থতা ত্রুটি বিচ্যুতি থাকলে সব তার। আর সফলতা যদি কিছু থাকে সেটা জনগণের।
ভাটারদের পুনরায় সেবা করার জন্য জনগণের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন এমনটা জানিয়ে তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ,পৌরসভা ও সংসদ নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের পক্ষে কাজ করেছেন। যাতে করে আওয়ামীলীগ সংগঠন বেশি শক্তিশালী হয়।
এছাড়া দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক জীবনে তিনি সকল শ্রেণী পেশার মানুষের সাথে থেকে আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করার সর্বাত্মক চেষ্টা করেছেন। পাশাপাশি অসহায় নিপীড়িত নির্যাতনের মানুষকে সহযোগিতার পাশাপাশি তাদের দেখভাল করেছেন।
গাংনী উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে গত পাঁচটি বছর এলাকার মানুষের সর্বোচ্চ সেবা করার চেষ্টা করেছি। আমি সরকারি অফিসের পাশাপাশি আমার নিজ বাড়ির নিচে অফিস করে সব সময় জনগণের সেবা করেছি। করোনা দুর্যোগের সময় জীবনবাজি রেখে খাদ্য সহায়তা থেকে শুরু করে মানুষকে সচেতনতার কাজ করেছি।
এসময় জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মাষ্টার ও উপদেষ্টা একরামুল হক সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেকাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :