গাংনীতে নিজের ইচ্ছায় অনশন করে,নিজের ইচ্ছায় অনশন ভেঙে বাড়ি গেলেন-মৌমিতা

গাংনীতে নিজের ইচ্ছায় অনশন করে,নিজের ইচ্ছায় অনশন ভেঙে বাড়ি গেলেন-মৌমিতা

শেয়ার করুন

অনেক জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে অনশন ভঙ্গ করলেন গাংনী পৌর এলাকার শিশির পাড়ার মৌমিতা খাতুন পলি ও তার মা হুসনে আরা বেগম। মৌমিতা খাতুন পলি ও তার মা হুসনে আরা বেগম চারদিন যাবৎ গাংনী উপজেলা পরিষদ চত্বরে অনশন শুরু করেন।

অনশনে দাবি ছিল গাংনী পৌর মেয়রের কাছে চাকরির জন্য প্রদান করা ১৫ লক্ষ্য টাকা ফেরত না পাওয়া পর্যন্ত তারা অনশন চালিয়ে যাবেন। কিন্তু চার দিন পার হলেও কেউ খোঁজ খবর রাখে নি তাদের। অনশনের বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে নানা কৌতূহল। মা ও মেয়ের অনশনে টনক নড়েনি পৌর মেয়রের ও। উপায়ন্তর না পেয়ে অবশেষে বৃহস্পতিবার বিকালে গাংনী উপজেলা পরিষদ শহীদ মিনারে লাগানো আমরণ অনশন ব্যানারটি অপসারণ করে মা মেয়ে দুজনেই বাড়ি চলে যান।

কোন অদৃশ্য ইশারায় বা প্রতিশ্রুতিতে তাদের এই আমরণ অনশন ভঙ্গ করলেন এমন প্রশ্ন করা হলে মা ও মেয়ে দুজনেই বলেন ,আমরা নিজের ইচ্ছায় অনশন করেছি, নিজের ইচ্ছাই বাড়ি চলে যাচ্ছি। এছাড়া আর কিছুই আপনারা জিজ্ঞেস করবেন না।

গাংনী পৌর মেয়র আশরাফুল ইসলামের বিরুদ্ধে অনশনের ঘটনাটি একটি নাটকীয়তার সৃষ্টি হয়েছে। জনমনে শুরু হয়েছে নানা প্রশ্ন। অনেকেই বলছেন পৌর মেয়র আশরাফুল ইসলাম অনশনকারীদের বিরুদ্ধে মানহানি মামলা করায় ঘাবড়ে গিয়ে অনশন ভঙ্গ করলেন তারা। আবার কেউ কেউ বলছেন বিষয়টি পারিবারিক ভাবে আপোষ মীমাংসার প্রতিশ্রুতি তেও অনশন ভঙ্গ করতে পারেন। তবে প্রকৃত ঘটনা আড়াল করতে চাইছেন অনশন ভঙ্গ কারীরা।

গাংনী উপজেলা